1. bappy.ador@yahoo.com : Admin : Admin admin
  2. hostctg@gmail.com : desk report :
  3. sohagkhan8933@gmail.com : editor editor : editor editor
  4. spapon116@gmail.com : jamunar-barta :
  5. mamunshekh432@gmail.com : reporter :
  6. sawontheboss4@gmail.com : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
ছেলেকে স'ম্প'ত্তি লিখে না দে'ওয়া'য় বি'ধবা বৃ'দ্ধা মা'কে বে'ধরক মা'রধ'র ছে'লের !
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৫৬ অপরাহ্ন

ছেলেকে স’ম্প’ত্তি লিখে না দে’ওয়া’য় বি’ধবা বৃ’দ্ধা মা’কে বে’ধরক মা’রধ’র ছে’লের !

Jamuna Desk Reporter
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৫৯ Time View

ছেলের নামে সম্পত্তি লিখে না দেওয়ায় বিধবা বৃ'দ্ধা মা কে বেধরক মা'রধর করে গু'রুতর জ'খম করল ছেলে সোহেল খাঁন কলিন ও তার স্ত্রী সানিয়া আক্তার।স্বজনরা জ'খম মাকে উ'দ্ধার করে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বর্তমানে বৃ'দ্ধা মা ছেলে ও পুত্রবধূর ভয়ে ঘরে ফিরতে পারছেন না। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অ'ভিযোগ করলেও মা'মলা নেয়নি পু'লিশ। ভুক্তভোগী মা বলেন, গত চার মাস আগে আমা'র স্বামী মৃ'ত্যুর পূবেই আমা'র নামে বাড়িটি লিখে দিয়ে যান।

এর পর থেকে জোরপূর্বক দিন দিন নি'র্যাতনের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছেন ছেলে ও ছেলের বউ। কেউ বাধা দিতে আসলে তাকেও গা'লিগা'লা'জ ও হ'ত্যার ভয় দেখান। পরিবারের সম্মানের কথা ভেবে অত্যাচারের বি'ষয়ে এতদিন কাউকে বলিনি।

সম্পদের লোভে আমাকে ছেলে এবং ছেলের বউ কিল ঘুসি মেরে যখম করে বাড়ি থেকে বের করে দেন।সমস্ত শরীরে আঘা'তে র'ক্তাক্ত হয়ে যায়। ছেলে এবং ছেলের বউ, দশ বারোজন অ'পরিচিত লোক দিয়ে আমাকে মা'রধর করেন বাড়ী লিখে নেওয়ার জন্য।

সংশ্লিষ্ট থানায় অ'ভিযোগ করতে গেলে পু'লিশ বি'ষয়টি আমলে না নিয়ে উল্টো আমা'র ছেলের মিথ্যা মা'মলা নিয়ে হা'মলার শিকার আমা'র বাাগিনাকে গ্রে'ফতার করে পু'লিশ।স্থানীয়রা বলেন, জোরপূর্বক বাড়ীর সম্পদ ও ভাড়া একাই ভোগের জন্য সোহেল খাঁন কলিন ও

তার বউ প্রভাব খাটিয়ে শ্বশুর বাড়ীর লোকজনের সহায়তায় বাড়ীর মালিক বিধবা বৃ'দ্ধ মাকে মা'রধর করেন। মা খুবই নিরিহ মানুষ। তবে তার স্বামীর মৃ'ত্যুর পর থেকে পরিবরে সম্পদ ভাগাভাগি নিয়ে ঝগড়াবিবাদ হয়।তবে নি'র্মম ভাবে মাকে আঘা'ত করে বাড়ী

থেকে বের করে দেন ছেলে ও ছেলের বউ। এগু'লো কোন ভালো মানুষের কাজ নয়। তার বিচার হওয়া উচিত। ছেলে কলিন এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলে আমি আমা'র মাকে মা'রিনি অনাাকাঙ্খিত ভাবে লেগে গেছে। তবে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

বি'ষয়টি নিয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আবু সালাম মিয়ার সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি ক্যামেরার সামনে এ ব্যাপারে কোন কথা বলার অনুমতি নেই বলে এরিয়ে যান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

More News Of This Category
Jamunabarta24 © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz