পুরুষের যে গুণে বেশি আকৃষ্ট হন নারীরা

জীবনে একবারও প্রেমে পড়েননি এমন ব্যক্তি খুঁজে পাওয়া কঠিন। প্রেম সবার জীবনেই আসে। প্রেমের রহস্য যে ঠিক কো’ন ভাষায় লেখা তা নিয়ে মানুষের কৌতূহল আবহমান কালের।

কেউ সে ভাষা বোঝে, কেউ বোঝে না। তাই মনের লিপির পাঠো'দ্ধার করার জন্য নারী-পুরুষের রসায়ন সংক্রা'ন্ত বেশ কি’ছু গবেষণাও শুরু হয়েছে এখন।
তেমনই একটি গ’বেষণা বলছে, নারী ও পুরুষ সম্পর্কে প্রাথমিক অবস্থায় একেবারেই আলাদা আলাদা জিনিস চান এ’কে-অন্যের কাছে।

পেনসিলভেনিয়ার বাকনেল বিশ্ববিদ্যালয় ও নিউ ইয়র্ক স্টেট ইউনিভার্সিটির এক দল গবেষক যৌ'থভাবে এই গবেষণা চা’লিয়েছেন।

আমেরিকা ও নরওয়ের ১০০০ জন ছাত্র-ছাত্রীর ওপর করা এই সমীক্ষা বলছে, নারীরা যদি ক্ষণিকের যৌ'নতা ও অস্থায়ী সম্পর্ক চান, তবে তারা স্পষ্ট করে সে কথা প্রকাশ করেন।

অন্যদিকে যে নারীরা দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্কে যেতে আগ্রহী, তারা পুরুষের মধ্যে যে দুটি গু'ণ সবচেয়ে বেশি খোঁজেন, তা হলো হাস্যরস ও উদারতা। লি'ঙ্গ ভেদে বি'ষয়টি আবার অন্য রকম।

গবেষকদের দাবি, যে নারীরা সহজে যৌ'ন সম্পর্কে আগ্রহী, তাদের প্রতি বেশি আকৃষ্ট হন পুরুষরা। তবে এ ছাড়াও আরও একটি উপায়ে নারীরা জিতে নিতে পারেন পুরুষদের মন।

অদ্ভুত শোনালেও, যে নারীরা পুরুষদের করা মশকরায় হাসেন, তাদের প্রতিও নাকি আকৃষ্ট হন পুরুষদের এ’ক বড় অংশ।

তবে মনে রাখতে হবে সম্পর্ক একেবারেই ব্যক্তি নির্দিষ্ট একটি বি'ষয়। কাজেই এক জনের কাছে যা আকর্ষণীয় মনে হবে, অন্যের কা’ছে তা আকর্ষণীয় না-ও মনে 'হতে পারে। ফলে এই ধরনের সমীক্ষাকে ধ্রুব সত্য বলে মেনে না নেওয়াই বিচক্ষণতার পরিচয়।